শিখন কাকে বলে | শিখনের বৈশিষ্ট্য লেখ

শিখন কাকে বলে | শিখনের বৈশিষ্ট্য লেখ

উত্তর :

শিখনের সংজ্ঞা :

পরিবর্তনশীল ও জটিল পরিবেশের সঙ্গে সংগতিবিধানের মাধ্যমে নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন ও আচরণের পরিবর্তন হল শিখন l মনােবিজ্ঞানীরা বিভিন্ন দিক থেকে শিখনকে সংজ্ঞায়িত করেছেন। নীচে কয়েকটি দৃষ্টিকোণ থেকে শিখনের সংজ্ঞা দেওয়া হল –

আচরণবাদী দৃষ্টিভঙ্গিঅভিজ্ঞতালাভের ফলে আচরণের পরিবর্তনহল শিখন।
জ্ঞানমূলক তত্ত্বের দিকজ্ঞান, বােধ, দক্ষতা ইত্যাদি অর্জনের প্রক্রিয়াহল শিখন।
নির্মিতিবাদের দৃষ্টিভঙ্গিশিশু বা শিক্ষার্থীর মধ্যে জ্ঞান নির্মাণের প্রক্রিয়াহল শিখন।
সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গিজ্ঞান নির্মাণের সামাজিক প্রক্রিয়া হল শিখন।

শিখনের বৈশিষ্ট্য :

শিখন প্রক্রিয়াকে বিশ্লেষণ করলে, এর মধ্যে কতকগুলি বৈশিষ্ট্য লক্ষ করা যায়। নীচে বৈশিষ্ট্যগুলি উল্লেখ করা হল

(1) উদ্দেশ্যমুখী বিকাশধর্মী প্রক্রিয়াশিখন হল উদ্দেশ্যমুখী প্রক্রিয়া। শিক্ষার্থী তার উদ্দেশ্যসাধনের জন্য প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করতে এগিয়ে আসে, শিখনের মাধ্যমে তা সম্ভব হয়। এটি একটি ক্রমবিকাশমান প্রক্রিয়া। মানুষ শিখনের মাধ্যমে সারাজীবনধরে নতুন নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করে থাকে।
(2) প্রেষণানির্ভর অভিযােজনমূলক প্রক্রিয়া।শিশুর বা ব্যক্তির অভ্যন্তরীণ গভীর স্পৃহা বা। চাহিদা হল প্রেষণা। প্রেষণা শিশুকে বা ব্যক্তিকে প্রেরণা জোগায় ও সক্রিয় করে তােলে। ফলে শিখন সম্পূর্ণ হয়। শিখন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যক্তি নতুন নতুন পরিস্থিতির সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নিতে সক্ষম হয়। নতুন কোনাে সমস্যায় পড়লে সমাধানের পথ খুঁজে বার করে।
(3) অভিজ্ঞতা অর্জনকারী চাহিদানির্ভর প্রক্রিয়া।শিখনের মাধ্যমে ব্যক্তি নতুন নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করে নিজে সমৃদ্ধ হয় এবং শিখনের মাধ্যমে ব্যক্তির ভােগবাদী জীবনে দৈহিক, মানসিক, প্রক্ষোভিক, সামাজিক প্রভৃতি চাহিদাগুলি তৃপ্ত হতে পারে। 
(4) অনুশীলনসাপেক্ষ সর্বজনীন প্রক্রিয়াঅনুশীলন বা চর্চা ছাড়া শিখন স্থায়ী হয় । নতুন নতুন আচরণ আয়ত্ত করার জন্য শিক্ষার্থীকে বার বার অনুশীলন করতে হয়। তবে শিখন শুধুমাত্র মানুষের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। নয়। ইতর প্রাণীরাও শেখে। তারাও শিখনের মাধ্যমে পরিবর্তিত পরিবেশে নিজেদের মানিয়ে নেয়।
(5) সমস্যা সমাধানমূলক ও সালনযােগ্য প্রক্রিয়াসমস্যামুলক পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থী বা ব্যক্তি যখন তার পুরােনাে আচরণগুলি সম্পাদনের মাধ্যমে লক্ষ্যে পৌছােতে পারে না, তখনই পরিস্থিতির চাপে পুরােনাে আচরণ পরিত্যাগ করে, নতুন আচরণ আয়ত্ত করে। শিখনের ফলে সে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করে, তা অন্য। পরিস্থিতিতেও কাজে লাগায়। একে বলে শিখন সঞ্চালন। এই সঞ্চালন আংশিক বা সম্পূর্ণ হতে পারে।
(6) ব্যক্তিনির্ভর। আত্মসক্রিয়তামূলক প্রক্রিয়াশিখন হল ব্যক্তিনির্ভর প্রক্রিয়া। শিখন প্রক্রিয়া শিক্ষার্থীকে বা ব্যক্তিকে সক্রিয় করে তােলে। আত্মসক্রিয়তা ছাড়া শিক্ষার্থীর শিখন সম্পন্ন হতে পারে না। পরিবর্তিত পরিবেশে কী। ধরনের আচরণ সম্পাদন করে ব্যক্তি সংগতিবিধান করবে, তা সে নিজেই স্থির করে। তাই এটি ব্যক্তিনির্ভর আত্মসক্রিয়তামূলক প্রক্রিয়া।
(7) বুদ্ধিনির্ভর বহুমুখী পরিবর্তনের প্রক্রিয়াবুদ্ধি দিয়ে কোনাে কিছু বিষয় শিখলে বা আয়ত্ত করলে তবেই সেই শিখন দীর্ঘস্থায়ীহয়। তাই এটিকে বুদ্ধিনির্ভর প্রক্রিয়া বলা হয়। জ্ঞান, দক্ষতা, মনােভাব, প্রক্ষোভ প্রভৃতি মানবিক গুণগুলি শিখনের মাধ্যমেই পরিবর্তিত হয়। মােটকথা শিখনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীর জীবনে বহুমুখী পরিবর্তন ঘটে। 

মন্তব্য:

উপরােক্ত বৈশিষ্ট্যগুলির পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায়—শিখন হল উদ্দেশ্যমুখী, বিকাশধর্মী, প্রেষণানির্ভর, অভিযােজনমূলক, অভিজ্ঞতা অর্জনকারী, চাহিদানির্ভর, অনুশীলনসাপেক্ষ, সর্বজনীন, সমস্যা সমাধানমূলক, সঞ্চালনযােগ্য, ব্যক্তিনির্ভর। আত্মসক্রিয়তামূলক, বুদ্ধিনির্ভর বহুমুখী পরিবর্তনের প্রক্রিয়া।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!