প্রত্যক্ষণের শ্রেণীবিভাগ করো | শিক্ষায় প্রত্যক্ষণের গুরুত্ব বা তাৎপর্য লেখো

প্রত্যক্ষণের শ্রেণীবিভাগ করো | শিক্ষায় প্রত্যক্ষণের গুরুত্ব বা তাৎপর্য লেখো

উত্তর :

প্রত্যক্ষণের শ্রেণীবিভাগ :

প্রত্যক্ষণকে প্রধানত তিন। ভাগে ভাগ করা যায় যথা –

[1] সাক্ষাৎ প্রত্যক্ষণ ; এটি এক ধরনের মৌলিক প্রত্যক্ষণ। এই ধরনের প্রত্যক্ষণে চক্ষু, কর্ণ, নাসিকা, ত্বক ও জিহ্বার মধ্যে যে-কোনাে একটি জ্ঞানেন্দ্রিয়ের মাধ্যমে বস্তুর কোনাে বিশেষ বৈশিষ্ট্য বা গুণকে নির্বাচন করা হয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় যখন কোনাে ব্যক্তি এক টুকরাে বরফ স্পর্শ করে, তখন বরফ-এর ঠান্ডা ভাবটি বুঝতে পারে।

[2] অর্জিত প্রত্যক্ষণ : এই ধরনের প্রত্যক্ষণে একাধিক ইন্দ্রিয় কার্যকারী ভূমিকা পালন করে। প্রথমে একটি ইন্দ্রিয়। দিয়ে সংবেদন ঘটে। পরমুহূর্তে অন্য একটি ইন্দ্রিয়ও কাজ করে এবং প্রত্যক্ষণ ক্রিয়া সম্পন্ন হয়। যেমন—কোনাে ব্যক্তি। বরফ স্পর্শ করলে তার ঠান্ডা ভাবটি স্পর্শেন্দ্রিয়র মাধ্যমে। অনুভূত হয়, পরে বরফের দিকে তাকালে দর্শন ক্রিয়াটি ঘটে এবং বরফের রং-এর গুণটির প্রত্যক্ষণ ঘটে। বরফ-এর রঙের প্রত্যক্ষণ হল অর্জিত প্রত্যক্ষণ।

[3] সংপ্রত্যক্ষণ : পূর্বঅভিজ্ঞতার ভিত্তিতে কোনাে নতুন ঘটনাকে প্রত্যক্ষণ করা হল সংপ্রত্যক্ষণ। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, একজন সাধারণ লােক যখন একটি গাছকে দেখে তখন। সে কেবল সেটিকে গাছ হিসেবেই বিবেচনা করে কিন্তু একজন। উদ্ভিদবিজ্ঞানী যখন একটি গাছকে দেখেন তখন তিনি গাছটির বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য ও গুণাবলি পূর্বঅভিজ্ঞতার দ্বারা চিহ্নিত করার চেষ্টা করেন এবং গাছটি কোন পর্বে বা শ্রেণির অন্তর্গত সে বিষয়েও অভিমত ব্যক্ত করেন।

শিক্ষায় প্রত্যক্ষণের গুরুত্ব বা তাৎপর্য :

 শিক্ষার প্রধান দুটি দিক শিখন ও শিক্ষণ-এর ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণের প্রভাব লক্ষ করা যায়। প্রত্যক্ষণ শ্রেণি শিখনের সময় এবং গৃহে বা অন্যত্র পাঠাভ্যাস। কালে ছাত্রছাত্রীকে বস্তুধর্মী অভিজ্ঞতা লাভে সহায়তা করে। এটি শিক্ষণীয় বিষয়ের সামগ্রিক রূপটিকেও তুলে ধরতে সাহায্য করে। মােট কথা প্রত্যক্ষণের ফলেই ছাত্রছাত্রীদের পঠনীয় বিষয় সম্পর্কে পরিপূর্ণ জ্ঞান বা অভিজ্ঞতা লাভ হয়। এখানে প্রত্যক্ষণের কয়েকটি শিক্ষামূলক গুরুত্ব আলােচনা করা হল।

[1] শিখনের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণের প্রভাব : শিখন ও প্রত্যক্ষণ পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। প্রত্যক্ষণের ক্ষেত্রে যে পূর্বঅভিজ্ঞতা ব্যক্তির মনের মধ্যে কাজ করে, সেটি শিখনের মাধ্যমেই ইতিমধ্যে অর্জিত হয়েছে। কোনাে কোনাে শিক্ষাবিদ ও মনােবিদের মতে, শিখন ও প্রত্যক্ষণ শুধুমাত্র সম্পর্কযুক্তই নয় বরং অপরের ওপর প্রভাব বিস্তার করে। 

[2] অনুকরণের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ : শিশুরা অনুকরণের মাধ্যমে বড়দের কাছ থেকে বিভিন্ন বিষয় শেখে। অনুকরণের। জন্য বিষয়টিকে ভালােভাবে প্রত্যক্ষ করার দরকার হয়। সঠিকভাবে বিষয়টিকে প্রত্যক্ষণ করার সুযােগ না-থাকলে, অনুকরণমূলক শিখন ক্রিয়াটির ব্যাঘাত ঘটে। তাই বলা যায়, অনুকরণের জন্য প্রত্যক্ষণ বিশেষভাবে দরকার। 

[3] দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ : কোনাে কাজের সাফল্য বােঝা যায় কাজটি সম্পাদনের ক্ষেত্রে যে দক্ষতা প্রকাশ। পেয়েছে, তার ওপর। আবার দক্ষতা আনতে গেলে সঠিক প্রত্যক্ষণের প্রয়ােজন হয়। প্রত্যক্ষণ ত্রুটিপূর্ণ হলে দক্ষতামূলক শিখন কার্য দুর্বল হয়। তাই দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ অপরিহার্য।

[4] জ্ঞান প্রয়ােগের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ : প্রয়ােজনের সময় অর্জিত জ্ঞান বা অভিজ্ঞতাকে যদি প্রয়ােগ করতে না পারা যায়, তাহলে সেই জ্ঞান মূল্যহীন হয়ে পড়ে। তাই যে-কোনাে বিষয়ে

জ্ঞান বা অভিজ্ঞতা অর্জনের সময় সেটির সামগ্রিক রূপকে সঠিকভাবে প্রত্যক্ষণ করা দরকার। নতুবা জ্ঞান প্রয়ােগের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থী অসুবিধার সম্মুখীন হবে। 

[5] পাঠক্রম অনুশীলনের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ : ছাত্রছাত্রীদের দৈনন্দিন পাঠ অনুশীলনের ক্ষেত্রেও প্রত্যক্ষণের প্রয়ােজন হয়। পাঠক্রমের অন্তর্গত বিষয়বস্তু যথাযথভাবে আয়ত্তকরণের ক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীরা যদি সেগুলিকে প্রত্যক্ষ করার সুযােগ নাপায় তাহলে শিখন কার্যকারী হয় না। মােটকথা পাঠক্রমের বিষয়বস্তুর বিষয়ে পারদর্শিতা অর্জন করতে হলে প্রত্যক্ষণ একান্তভাবে প্রয়ােজন। 

[6] সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ : প্রত্যেক ব্যক্তির কাছেই সমস্যা সমাধান করা একটি গুরুত্বপূর্ণ শিখন। সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে যে পর্যায়গুলি অতিক্রম করতে হয়, সেই পর্যায়গুলি সঠিক প্রত্যক্ষণ না-হলে সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি হয়। এমনকি সমস্যা সমাধান সম্ভব হয় না। সেই কারণে সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। উপরিউক্ত আলােচনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় — নানান ধরনের শিখনের জন্য প্রত্যক্ষণ একান্তভাবে অপরিহার্য। শিক্ষার উদ্দেশ্য এবং লক্ষ্যকে যদি ফলপ্রসু করে তুলতে হয় তাহলে সঠিক প্রত্যক্ষণের প্রয়ােজনীয়তাকে স্বীকার করতে হবে। ছাত্রছাত্রীর সঠিক ও উন্নত শিখন অনেকাংশেই প্রত্যক্ষণের ওপর নির্ভরশীল।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!