মনােবিদ্যা বলতে কী বােঝ? মনােবিদ্যার ধারণার ক্রমপরিবর্তন সংক্ষেপে আলােচনা করাে

মনােবিদ্যা বলতে কী বােঝ? মনােবিদ্যার ধারণার ক্রমপরিবর্তন সংক্ষেপে আলােচনা করাে

উত্তর : 

মনােবিদ্যা :

মনােবিদ্যা তথা Psychology শব্দটি দুটি গ্রিক শব্দ থেকে নেওয়া হয়েছে। এদের একটি হল ‘Psyche’ যার অর্থ আত্মা (Soul) এবং অন্যটি হল ‘Logos’, যার অর্থ বিদ্যা বা বিজ্ঞান। অর্থাৎ মনােবিদ্যা হল আত্মার বিজ্ঞান।

পৃথিবীতে যেসকল বিষয় রয়েছে, তাদের মধ্যে মনােবিদ্যা হল একটি নতুন বিজ্ঞান বিষয়। বিশিষ্ট দার্শনিক অ্যারিস্টটল তাঁর ‘DeAnima’ গ্রন্থে মনােবিদ্যাকে একটি পৃথক বিজ্ঞান বিষয়ে স্বীকৃতি দেন। বর্তমানে পৃথিবীর প্রায় প্রত্যেকটি দেশেই একটি জনপ্রিয় বিজ্ঞান হিসেবে মনােবিদ্যা বিবেচিত হয়।

মনােবিদ্যার ধারণার ক্রমপরিবর্তন :

মনােবিদ্যার ধারণা প্রসঙ্গে আলােচনা করলে দেখা যায় মনােবিদ্যার সংজ্ঞা বিভিন্ন ধাপে পরিবর্তিত হয়েছে। এখানে ধাপগুলি আলােচনা করা হল—

[1] আত্মার বিজ্ঞান: মনােবিদ্যা হল আত্মার বিজ্ঞান (Psychology is the science of Soul.)। এই অভিমত। ব্যক্ত করেছিলেন অ্যারিস্টটল, প্লেটো, ডেমােক্রিটাস প্রমুখ দার্শনিকরা। মনােবিদ্যার এই ধারণাটি ধীরে ধীরে পরিবর্তিত হতে থাকে। কারণ আত্মাকে পর্যবেক্ষণ করা যায় না। আত্মাকে নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষাও করা যায় না। ফলে মনােবিদ্যাকে। “আত্মার বিজ্ঞান’ বলা যায় না।

[2] মনের বিজ্ঞান : মনােবিদ্যা হল মনের বিজ্ঞান। (Psychology is the science of mind.) që apewell সমর্থন করেন দার্শনিক কান্ট, মনােবিদ টিচেনার, হােলডিং, প্রমুখ ব্যক্তিরা। এই ধারণাটিও স্থায়ী হয় না। কারণ আত্মার। মতাে মনকে পর্যবেক্ষণ করা যায় না এবং পরীক্ষানিরীক্ষা করা যায় না। 

[3] চেতনার বিজ্ঞান : মনােবিদ্যা হল চেতনার বিজ্ঞান। (Psychology is the science of conciousness.) এই সংজ্ঞাটি দান করেন মনােবিদ অ্যাঙ্গেল। বিভিন্ন দার্শনিক ও মনােবিদ এই সংজ্ঞাটিকে সমর্থনও করেন। সমর্থকদের মধ্যে উল্লেখযােগ্য হলেন—লক, হবস প্রমুখ দার্শনিকরা এবং টিচেনার, উইলিয়াম, জেমস প্রমুখ মনােবিদরা। মনােবিদ্যাতে চেতন, প্রাক্‌চেতন, অবচেতন মন নিয়ে গবেষণা করা হয়। তবে চেতনা অনুশীলনের দ্বারা ব্যক্তির সকল বিষয় সম্পর্কে যথাযথ জ্ঞান লাভ করা যায় না। তাই মনােবিদ্যার এই ধারণাটি। পরিবর্তিত হতে থাকে। 

[4] অচিরণের বিজ্ঞান : মনােবিদ্যা হল ‘আচরণের বিজ্ঞান’। আধুনিক কালে মনােবিদরা মনােবিদ্যাকে আচরণের পরিপ্রেক্ষিতে ব্যাখ্যা করেছেন। মনােবিদ ওয়াটসনের মতে — “আচরণের ধনাত্মক বিজ্ঞান হল মনােবিদ্যা’ (Psychology is the positive science of behaviour.) 

ওপরের আলােচনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায়, মনােবিদ্যার। ধারণাটি নিম্নলিখিত ধাপে পরিবর্তিত হয়েছে।

আত্মা → মন → চেতনা → আচরণ

প্রথম ধাপ দ্বিতীয় ধাপ তৃতীয় ধাপ চতুর্থ ধাপ। মনােবিদ্যার ধারণা ও সংজ্ঞা পরিবর্তনের ধাপগুলি পর্যবেক্ষণ করে বিশিষ্ট মনােবিদ উডওয়ার্থ একটি সুন্দর মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন—“First Psychology lost its soul, then it lost its mind, then it lost its conciousness. It still has behaviour of a kind।” অর্থাৎ মনােবিদ্যা প্রথমে তার আত্মাকে হারিয়েছে, তারপর মনকে হারিয়েছে, তারপর চেতনার ধারণা হারিয়েছে তবে বর্তমানে এটি ‘আচরণের বিজ্ঞান’ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!