মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাথমিক শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলি বর্ণনা করো

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাথমিক শিক্ষার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলি বর্ণনা করো

উত্তর :

সামাজিক জীবনে বসবাস ও সামাজিকীকরণের ক্ষেত্রে শিক্ষা এক গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার। প্রত্যেক উন্নয়নশীল দেশে প্রাথমিক শিক্ষা এক বিশেষ মানদণ্ডের উন্নয়ন করে। কারণ এই শিক্ষার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ নাগরিক জীবনের মূলবীজ নিহিত থাকে। শিশুর চরিত্র গঠন এই স্তরের বিশেষ বৈশিষ্ট্য। 

প্রাথমিক শিক্ষা শিশুর চরিত্র গঠনের প্রধান হাতিয়ার, শিশুর ব্যক্তিত্ব বিকাশের প্রধান আশ্রয়স্থান।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাথমিক শিক্ষার লক্ষ্য : 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে 6 বছরের প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যােগদান করা বাধ্যতামূলক। 1918 সালে বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা আইন ঘােষিত হয়। এই শিক্ষার কতগুলি নির্দিষ্ট লক্ষ্য আছে। যথা—  

1) শিক্ষার্থীদের সামাজিক স্তরবিন্যাস বা ভেদাভেদ দূর করা এবং শিক্ষার্থীদের চাহিদা পূরণ করা।

2) সমাজ উপযােগী করে গড়ে তােলা বা প্রত্যেক শিশুকে সামাজিকীকরণ করতে শেখানাে।

3) শিশুদের সহযােগিতা, চিন্তা, খেলাধুলা প্রভৃতি শেখানাে।

4) সামাজিক মূল্যবােধ, শিক্ষার মান, শিক্ষার মূল উপকরণ প্রভৃতি জানতে সহায়তা করা।

5) অতীত সংস্কৃতি ও সভ্যতা সম্পর্কে শিক্ষার্থীকে সচেতন করা। 

6) প্রত্যেকটি শিক্ষার্থীর স্বাস্থ্যাভ্যাস গঠন করা। 

7) শিক্ষার্থীর দৈহিক পরিচর্যা ও গঠন। 

8) শিক্ষার্থীদের মধ্যে গণতান্ত্রিকবােধ জাগ্রত করা। 

9) আদর্শ জীবন গঠন ও সর্বাঙ্গীণ বিকাশসাধন করা এই শিক্ষার অন্যতম লক্ষ্য।

10) শিশুর আদর্শ স্বাস্থ্যাভ্যাস গঠন করা এই শিক্ষার লক্ষ্য।

11) দেশের প্রতি ভালােবাসার মনােভাব জাগ্রত করা তথা শিক্ষার্থীর মধ্যে অধিকার ও কর্তব্যবােধ সম্পর্কে সচেতন করা এই শিক্ষার অন্যতম লক্ষ্য।

12) শিক্ষার্থীর মধ্যে মুক্তমনের বিকাশ ঘটানাে অন্যতম লক্ষ্য।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রাথমিক শিক্ষার উদ্দেশ্য :

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে শিক্ষার লক্ষ্যের ওপর ভিত্তি করে কতগুলি উদ্দেশ্য স্থির করা সম্ভব হয়েছে ও হচ্ছে। শিক্ষার্থরি ভিত গঠনের ভিত্তিভূমি এই প্রাথমিক শিক্ষার মধ্যে নিহিত থাকে। শিক্ষার উদ্দেশ্যগুলি বাস্তবে বিভিন্নভাবে উপস্থাপিত হচ্ছে। সেরকম কয়েকটি উদ্দেশ্য নিম্নরূপ

(i) কাজের মাধ্যমে শিশুর চরিত্রের বিকাশ, সামাজিক অধিকার, খেলাধুলা ও সহযােগিতামূলক মনােভাব ও নিজস্ব মতামত গঠন করা। 

(ii) শিশুদের প্রাথমিক চাহিদা পূরণ করা ও অন্যান্য মানসিক জিনিসের সঙ্গে পরিচয় করানাে। 

(iii) পিতা-মাতা ও নার্সারি বিদ্যালয়ের মাধ্যমে শিশুর মধ্যে দৈহিক স্বাস্থাভ্যাস গঠন করা। 

(iv) শিশুদের প্রাত্যহিক জীবনে বৈজ্ঞানিক মনােভাব ও বিজ্ঞানের ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন করা। 

(v) আদর্শ ও গণতান্ত্রিক নাগরিক গঠনের জন্য শিশুদের বিভিন্ন জিনিসে আনুগত্যের বিকাশ ঘটাতে ও জানতে সহায়তা করা হয়। 

(vi) শিশুদের মধ্যে বিভিন্ন কাজের মাধ্যমে গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি করা। 

(vii) শিক্ষার্থীর সৃজনী ক্ষমতার বিকাশ এবং সামগ্রিক সমস্যার সমাধান করা হয়। 

(viii) এই পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে আন্তর্জাতিকতাবােধ সম্বন্ধে সচেতন করা হয়।

(ix) সার্বিক যােগাযােগ ও কার্যকরী ব্যবহারের জন্য দরকারি মৌলিক দক্ষতা ও উপলব্ধির বিকাশ ঘটানাে। 

(x) 3 Rs-এর পরিবর্তে 5 Rs-এর কথা বলা হয়েছে। অর্থাৎ Reading, Writing, Arithmetic, Relationship, Recreation. Recreation চিত্রাঙ্কন ও হস্তশিল্প গুরুত্বলাভ করছে। 

(xi) স্কুলগুলিতে এমন পরিবেশ তৈরি করা যাতে শিশুদের স্বাস্থ্যকর সামাজিক প্রবণতাগুলির বিকাশ হয়।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!