ব্রম্মপুত্র নদ বন্যাপ্রবণ কেন? | অসমে প্রতিবছর বন্যা হয় কেন?

ব্রম্মপুত্র নদ বন্যাপ্রবণ কেন?
অথবা, অসমে প্রতিবছর বন্যা হয় কেন?   Class 10 | Geography | 3 Marks

উত্তর:-

ব্রম্মপুত্র নদ বন্যাপ্রবণ হওয়ার কারণ : অসমের প্রধান নদ ব্ৰম্মপুত্র। প্রায় প্রতিবছরই বর্ষাকালে এই ব্রম্মপুত্র নদে প্রবল জলােচ্ছ্বাস হয়, ফলে অসমের বিস্তীর্ণ এলাকা বন্যার কবলে পড়ে, কারণ— 

1. ভূমির ঢাল কম : ব্রম্মপুত্র নদ অসমের যে অংশের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে সেখানে ভূমির ঢাল খুবই কম। এজন্য ব্ৰম্মপুত্র নদের গতি অত্যন্ত ধীর। তার ফলে উর্ধপ্রবাহ থেকে যখন বিপুল পরিমাণ জলরাশি ব্ৰত্মপুত্রের মধ্যপ্রবাহে অর্থাৎ অসমে চলে আসে তখন তা দ্রুত নদীখাত দিয়ে নিম্নপ্রবাহে বয়ে যেতে না পেরে দু-কূল ছাপিয়ে অসমে বন্যার সৃষ্টি করে। 

2. অগভীর নদীখাত : অসমে ব্ৰম্মপুত্রের গতি অতি ধীর বলে নদীর বহন ক্ষমতাও খুব কম। ব্ৰম্মপুত্র এবং তার উপনদীগুলি তাদের ঊর্ধ্বপ্রবাহ অঞ্চল থেকে যে পরিমাণ পলি বহন করে আনে তার বেশিরভাগই এখানকার নদীখাতে জমা হয়। এইভাবে বহুবছর ধরে পলি সঞ্চিত হওয়ার ফলে অসমে ব্রম্মপুত্র নদীখাতের গভীরতা বর্তমানে যথেষ্ট হ্রাস পেয়েছে। এর ফলে ব্ৰম্মপুত্রে জলের পরিমাণ কিছুটা বাড়লেই সীমিত ধারণ ক্ষমতার জন্য তা দু-কূল ছাপিয়ে বন্যার সৃষ্টি করে।

3. প্রচুর বৃষ্টিপাত : গ্রীষ্ম ও বর্ষাকালে সাংপাে নদ ঊর্ধ্বপ্রবাহে যখন তিব্বত থেকে প্রচুর পরিমাণে বরফগলা জল বহন করে আনে, সেই সময় অসমেও প্রবল বর্ষণ হয়। অগভীর ব্রত্মপুত্রের খাতে যখন ওই বরফগলা জল ও বৃষ্টির জল এসে পড়ে, তখন তা বহন করার ক্ষমতা ব্ৰম্মপুত্রের আর থাকে না। ফলে দু-কূল ছাপিয়ে অসমের বিস্তীর্ণ এলাকাকে প্লাবিত করে।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!