ব্রাহ্মণ্য শিক্ষার সঙ্গে বৌদ্ধ শিক্ষার পার্থক্যগুলি উল্লেখ করো

ব্রাহ্মণ্য শিক্ষার সঙ্গে বৌদ্ধ শিক্ষার পার্থক্যগুলি উল্লেখ করো
অথবা, ব্রাহ্মণ্য শিক্ষা ও বৌদ্ধ শিক্ষার মধ্যে বৈসাদৃশ্যগুলি উল্লেখ করাে। 

উত্তর : 

ব্রাহ্মণ্য শিক্ষা ও বৌদ্ধ শিক্ষার পার্থক্য : 

বৌদ্ধ শিক্ষাকে ব্রাহ্মণ্য শিক্ষার পরিবর্তিত রূপ বলা হলেও, এই দুই শিক্ষাব্যবস্থার মধ্যে অনেকগুলি পার্থক্য বা বৈসাদৃশ্য লক্ষ করা যায়। নীচে পার্থক্য বা বৈসাদৃশ্যগুলি উল্লেখ করা হল —

বিষয় ব্রাহ্মণ্য শিক্ষাবৌদ্ধ শিক্ষা
1. শিক্ষাদান কেন্দ্রব্রাহ্মণ্য শিক্ষার প্রতিষ্ঠান হল গুরুগৃহ বা গুরুকুল। বৌদ্ধ শিক্ষার প্রতিষ্ঠান হল বৌদ্ধ মঠ বা বিহার। 
2. শিক্ষাকেন্দ্রের মালিকানাগুরুগৃহ বা গুরুকুল ছিল গুরুর সম্পত্তি।বৌদ্ধ মঠ বা বৌদ্ধ বিহার ছিল সংঘের সম্পত্তি।
3. শিক্ষার মাধ্যমএই শিক্ষার মাধ্যম ছিল সংস্কৃত ভাষা।এই শিক্ষার মাধ্যম ছিল প্রাকৃত ভাষা বা পালি ভাষা। 
4. শিক্ষা সমাপ্তির অনুষ্ঠানএই শিক্ষায় সমাপ্তিঅনুষ্ঠান সমাবর্তন ছিল শিক্ষা শেষে গৃহে প্রত্যাবর্তনের অনুষ্ঠান।এই শিক্ষায় সমাপ্তি অনুষ্ঠান উপসম্পদা ছিল চিরকালীন গৃহত্যাগের অনুষ্ঠান।
5. পাঠক্রমএই শিক্ষার পাঠক্রমে বেদ, বেদাঙ্গ, গণিত ও জ্যোতির্বিদ্যার ওপর বেশি ঝোঁক দেওয়া হত। এই শিক্ষার পাঠক্রমে সেবাধর্ম, লােকশিক্ষা ও চিকিৎসাশাস্ত্রের ওপর অধিক ঝোক দেওয়া হত।
6. শিক্ষার প্রকৃতিএই ধরনের শিক্ষা ছিল বেশ জটিল।এই ধরনের শিক্ষা ছিল তুলনামূলকভাবে সরল।
7. শিক্ষার প্রসারএই শিক্ষা কেবল ভারতবর্ষের বিভিন্ন অংশেই সীমাবদ্ধ ছিল।এই শিক্ষা ভারতের বাইরের বিভিন্ন দেশে প্রসারলাভ করেছিল।
8. নারীশিক্ষাএই শিক্ষাব্যবস্থায় নারীশিক্ষার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হত।এই শিক্ষাব্যবস্থায় প্রথম দিকে নারীশিক্ষার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হত না।
9. চতুরাশ্রমএই শিক্ষাব্যবস্থায় চতুরাশ্রম প্রথার প্রভাব দেখা যায়।এই শিক্ষাব্যবস্থায় চতুরাশ্রম প্রথার প্রভাব দেখা যায় না। 
10. সর্বজনীনতাএই শিক্ষা সর্বজনীন – ছিল না। কারণ শূদ্র সম্প্রদায়কে শিক্ষালাভের অধিকার থেকে বঞ্চিত রাখা হত। এই শিক্ষা ছিল সর্বজনীন। জাতিধর্মবর্ণনির্বিশেষে সবাই এতে অংশগ্রহণ করতে পারত (রােগগ্রস্ত ও অপরাধী ছাড়া)।
11. শিক্ষায় গণতান্ত্রিকতাশিক্ষায় গণতান্ত্রিকতার নীতি মানা হত না। গুরুর কথাই ছিল শেষ কথা।শিক্ষায় গণতান্ত্রিকতার নীতি মানা হত। গুরুর পাশাপাশি শিষ্যদের কথাও শােনা হত। 
12. বেদনির্ভরতাএই শিক্ষা ছিল পুরােপুরি বেদনির্ভর।এই শিক্ষা বেদনির্ভর ছিল না।
13. গণশিক্ষার সুযােগএই শিক্ষাব্যবস্থায় গণশিক্ষার সুযােগ কম ছিল।এই শিক্ষাব্যবস্থায় গণশিক্ষার সুযােগ ছিল না।
14. চরম লক্ষ্যএই শিক্ষার চরম লক্ষ্য ছিল আত্মােপলব্বি।এই শিক্ষার চরম লক্ষ্য ছিল জগতের সব ধরনের বন্ধন থেকে মুক্তি ও পরিনির্বাণ লাভ।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!