ভারতের জনজীবনে মৌসুমি বায়ুর প্রভাব আলােচনা করাে। 

ভারতের জনজীবনে মৌসুমি বায়ুর প্রভাব আলােচনা করাে।   Class 10 | Geography | 5 Marks

উত্তর:-

ভারতের জনজীবনে মৌসুমি বায়ুর প্রভাব : ভারতের জনজীবনে মৌসুমি বায়ুর গুরুত্ব অপরিসীম— 

1. ফসল উৎপাদনে : ভারতের অধিকাংশ অধিবাসী কৃষিজীবী। দেশের অধিকাংশ কৃষিকাজ মৌসুমি বৃষ্টিপাতের ওপর নির্ভরশীল। যেমন—ধান, আখ, তুলাে, চা, পাট প্রভৃতির উৎপাদন।

2. কৃষিভিত্তিক শিল্পে : মৌসুমি বৃষ্টিপাতের ফলে পরােক্ষভাবে বিভিন্ন প্রকার কৃষিভিত্তিক শিল্পেরও উন্নতি হয়েছে। যেমন— কার্পাস বয়ন শিল্প, পাট শিল্প, চিনি শিল্প প্রভৃতি। 

3. জলবিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদনে : দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সংঘটিত বৃষ্টিপাতের ওপর জলবিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদন অনেকাংশে নির্ভরশীল। বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ভালাে হলে জলবিদ্যৎ শক্তি উৎপাদন যেমন বাড়ে, তেমনই বৃষ্টিপাত কম হলে জলবিদ্যুৎ শক্তি উৎপাদন হ্রাস পায়। +

4. সেচ ব্যবস্থার উন্নতিতে : কৃষিক্ষেত্রে জলসেচ করার সাফল্যও মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সংঘটিত বৃষ্টিপাতের ওপর নির্ভরশীল। বৃষ্টিপাত বেশি হলে প্লাবন খালগুলি থেকে দীর্ঘদিন জলসেচ করা সম্ভব। আবার, পর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের কারণে নিত্যবহ খালগুলি থেকে বিস্তীর্ণ অঞ্চলব্যাপী জলসেচ করা সম্ভব হয়। 

5. অরণ্য সৃষ্টিতে : মৌসুমি বৃষ্টিপাতের জন্যই পশ্চিমঘাট পার্বত্য অঞ্চল ও পর্ব হিমালয় অঞ্চলে অর্থনৈতিক দিক থেকে মূল্যবান চিরসবুজ অরণ্য এবং ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের পাতাঝরা অরণ্যের সৃষ্টিহয়েছে।

অন্যান্য প্রভাব :

1. অর্থনৈতিক বিকাশে : ভারতের অর্থনীতি বহুলাংশে মৌসুমি বায়ুর ওপর নির্ভরশীল। দেশে পরিমিত বৃষ্টিপাত হলে যেমন অতিরিক্ত কৃষিকাজ ও শিল্পোৎপাদনের মাধ্যমে অর্থনৈতিক বিকাশ দ্রুত হয়, তেমনই অতি বৃষ্টিপাতে বন্যা এবং অল্প বৃষ্টিপাতে খরা দেখা দেয়। এর ফলে অর্থনীতি বিপর্যস্ত হয় ও দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়। 

2. বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনে : চা, পাট, বস্ত্র, চিনি ইত্যাদি রপ্তানির মাধ্যমে ভারত প্রচুর পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন করে, যা পরােক্ষভাবে মৌসুমি বায়ুর দ্বারাই প্রভাবিত হয়।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!