ভারত ছাড়াে আন্দোলনে শ্রমিক শ্রেণির ভূমিকা আলােচনা করাে।

ভারত ছাড়াে আন্দোলনে শ্রমিক শ্রেণির ভূমিকা আলােচনা করাে।  4 Marks/Class 10

উত্তর:-

ভূমিকা : ১৯৪২-র ভারত ছাড়াে আন্দোলন ছিল স্বতঃস্ফূর্ত এবং একটি প্রকৃত গণ-আন্দোলন যেখানে সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও শ্রমিক শ্রেণিকে এই আন্দোলনে অংশগ্রহণ করা থেকে বিরত রাখা যায়নি। 

শ্রমিক শ্রেণির ভূমিকা : ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দে ভারত ছাড়াে আন্দোলনে শ্রমিকরা যেভাবে যােগদান করে তা হল — 

১ l দিল্লির ধর্মঘট : আন্দোলন শুরুর প্রাথমিক পর্বে দিল্লির ধর্মঘটী মিল শ্রমিকদের সঙ্গে সরকারি প্রশাসনের সংঘর্ষ ঘটলেও শেষপর্যন্ত মিল শ্রমিকরা আন্দোলন থেকে সরে যায়। 

২ l বিভিন্ন শহরের ধর্মঘট : গান্ধিজি ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে কারারুদ্ধ করার প্রতিবাদে বােম্বাই, নাগপুর, আমেদাবাদ প্রভৃতি শিল্পাঞ্চলে শ্রমিকরা এক সপ্তাহ ধরে ধর্মঘট ও কর্মবিরতি পালন করে।

৩ l জামসেদপুরে ধর্মঘট : জামশেদপুরে লৌহ-ইস্পাত কারখানায় -সাই দুই মাস ধরে ধর্মঘট পালনের পাশাপাশি সেখানে জাতীয় সরকার প্রতিষ্ঠার দাবি করা হয়। 

৪ l ব্যাঙ্গালাের ধমর্ঘট : ব্যাঙ্গালােরে জাতীয়তাবাদী নেতা কে টি ভাষ্যমের নেতৃত্বে ৩০,০০০ শ্রমিক অল্প কিছুদিনের জন্য ধর্মঘট করে।

৫ l কলকাতা ধর্মঘট : ভারত ছাড়াে আন্দোলনে প্রায় দুই সপ্তাহের মধ্যে কলকাতার শিল্পাঞ্চলে ধর্মঘট সংঘটিত হলেও কলকাতা সংলগ্ন শিল্পাঞ্চল শান্ত ছিল।

উপসংহার : ভারত ছাড়াে আন্দোলনপর্বে শ্রমিক আন্দোলনের ও ছিল কম, কারণ এই আন্দোলনে ভারতের কমিউনিস্ট দল যােগ দেয়নি বা শ্রমিক শ্রেণিকে ভারত ছাড়াে আন্দোলনের সমর্থনে ধর্মঘট করার নির্দেশ দেয়নি।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!