বাংলায় ছাপাখানার উদ্ভবের প্রেক্ষাপট বিশ্লেষণ করাে। বাংলায় ছাপাখানা বিকাশের প্রাথমিক পর্যায় ব্যাখ্যা করাে।

বাংলায় ছাপাখানার উদ্ভবের প্রেক্ষাপট বিশ্লেষণ করাে। বাংলায় ছাপাখানা বিকাশের প্রাথমিক পর্যায় ব্যাখ্যা করাে। 8 Mrks | Class 10

উওর) প্রথম অংশ : বাংলার ছাপাখানার উদ্ভব : বাংলায় ছাপাখানার উদ্ভব দেরিতে হলেও তা আকস্মিক ছিল না, কারণ— 

১। বিক্ষিপ্ত মুদ্রণ : ১৭৭৮ খ্রিস্টাব্দের আগে প্রায় একশাে বছর ধরে বিক্ষিপ্তভাবে বাংলা হরফযুক্ত মুদ্রণের কাজ হয়েছিল। এগুলির মধ্যে উল্লেখযােগ্য হল আতানাসিউস কির্স রচিত চায়না। ইলাস্ট্রেটা’ (১৬৬৭ খ্রি.) ও হ্যালহেড রচিত ‘এ কোড অব জেন্টু লজ’ (১৭৭৬ খ্রি.)।

২। প্রশাসনিক প্রয়ােজন : ১৭৭৩ খ্রিস্টাব্দে রেগুলেটিং আইনের মাধ্যমে বাংলায় প্রত্যক্ষভাবে ইংরেজ শাসনের সূচনা হলে বাংলা ভাষায় মুদ্রিত আইন বা নির্দেশদানের প্রয়ােজন দেখা দেয়। 

৩। হেস্টিংসের পৃষ্ঠপােষকতা : হ্যালহেডের বাংলা ব্যাকরণ গ্রন্থ থেকে জানা যায় যে, বাংলার গভর্নর ওয়ারেন হেস্টিংস নিজ দায়িত্বে সরকারি খরচে এই গ্রন্থটি মুদ্রণের ব্যবস্থা করেন। 

৪। উইলকিনস্ত্রে ভূমিকা : প্রাচ্যপণ্ডিত ইংরেজ প্রশাসক চার্লস উইলকিনস্ ছিলেন বাংলার মুদ্রাক্ষর তৈরিতে অভিজ্ঞ। তিনি হেস্টিংসের অনুরােধে পঞ্চানন কর্মকারের সহযােগিতায় হ্যালহেড-এর ব্যাকরণ গ্রন্থের মুদ্রাক্ষর তৈরি করে দেন।

দ্বিতীয় অংশ : বাংলার ছাপাখানার বিকাশের প্রাথমিক পর্যায় : ছাপাখানার বিকাশের প্রাথমিক পর্যায় ছিল ১৭৭৮-১৭৯৯ খ্রিস্টাব্দ। এই সময়পর্বে ছাপাখানার বিভিন্ন দিকগুলি হল— 

১। হ্যালহেড-এর ব্যাকরণ : ১৭৭৮ খ্রিস্টাব্দে ব্রাসি হ্যালহেড ইংরেজ কোম্পানির কর্মচারী বা ইংরেজদের বাংলা শিক্ষার জন্য Basis OUT ‘A Grammar of the Bengal Language নামক একটি গ্রন্থ প্রকাশ করেন, যে গ্রন্থের মােট পৃষ্ঠার চারভাগের একভাগ অংশে তিনি উদাহরণরূপে বাংলা হরফ ব্যবহার করেন । এইভাবে প্রথম বাংলা মুদ্রণ বা ছাপার কাজ শুরু হয়।

২। কোম্পানির প্রেস : হুগলির অ্যান্ড্রুজের ছাপাখানা ছিল বাংলার প্রথম ছাপাখানা। তবে এই ছাপাখানার সব যন্ত্রপাতি ক্রয় করে সরকারি উদ্যোগে উইলকিনত্রে নেতৃত্বে কলকাতায় কোম্পানির প্রেস প্রতিষ্ঠিত হয় (১৭৮০ খ্রি.)। 

৩। হিকির প্রেস : কোম্পানির প্রেস প্রতিষ্ঠিত হলে এই প্রেস থেকে হিকিজ গেজেট নামক সাপ্তাহিক সংবাদপত্রের প্রথম দশটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়। পরে অবশ্য হিকি নিজস্ব ছাপাখানা প্রতিষ্ঠা করেন।

4 অন্যান্য প্রেস : কোম্পানির প্রেসের সমসাময়িক অন্যান্য ছাপাখানার মধ্যে কলকাতায় ৩৭ নং লারকিন্স লেনে আর-একটি হাপাখানা, ক্যালকাটা গেজেট প্রেস’ নামক আধা-সরকারি হাপাখানা (১৭৮৪ খ্রি.), ক্রনিকল প্রেস’ ও ‘ফেরিস অ্যান্ড কোম্পানির প্রেস’ ছিল উল্লেখযােগ্য।

বাংলার প্রাথমিক পর্যায়ের এই ছাপাখানাগুলির উৎপাদন ছিল “হন ও আইনগ্রন্থের অনুবাদ, ব্যাকরণ-অভিধান ও শব্দকোষ এবং সংবাদপত্র ও সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!