আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023 | Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer | Madhyamik Bengali Suggestion 2023

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023, Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer, Madhyamik Bengali Suggestion 2023। মাধ্যমিক ফাইনাল পরীক্ষা ২০২৩ এ যাতে তোমরা ভালো ফল লাভ করতে পারো, সেই জন্য আমরা এখানে বাংলা কবিতা আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি থেকে ছোট বড় সব প্রশ্ন উত্তর এর সাজেশন নিয়ে এসেছি।

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023 | Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer | Madhyamik Bengali Suggestion 2023

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023, Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer – এখানে আমরা মাধ্যমিক বাংলা কবিতা আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি থেকে ছোট বড় সব গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর নিয়ে সাজেশন প্রকাশ করেছি। এই সাজেশন তোমরা ভালোভাবে অধ্যয়ন করলে পরীক্ষায় অনেক ভালো রেজাল্ট করতে পাবে। অভিজ্ঞ শিক্ষকদের দ্বারা এই সাজেশনটি প্রস্তুত করা হয়েছে। বাকি অধ্যায়গুলি থেকে সাজেশন পেতে এই লিঙ্কে ক্লিক করো

মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023

আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি

শঙ্খ ঘােষ

বহু নির্বাচনী, অতিসংক্ষিপ্ত ও সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর


বহু নির্বাচনী – ১ নম্বরের প্রশ্নোত্তরগুলি দেখে নেওয়া যাক –

১. আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কাব্যাংশটি কবিতায় কত বার ব্যবহৃত হয়েছে?
(ক) একবার
(খ) দুইবার
(গ) তিনবার
(ঘ) চারবার
উত্তর- (খ) দুইবার

২. “আমাদের ঘর গেছে উড়ে”—পঙক্তিটির ভাবার্থ হল—
(ক) আকস্মিক বিপর্যয়ে ঘর ধ্বংস হয়ে গেছে।
(খ) আমাদের ঘর ভেঙে গেছে।
(গ) ঘর ছেড়ে আমরা উড়ে চলে এসেছি।
(ঘ) বিমানের মধ্যেই ছিল আমাদের ঘর।
উত্তর- (ক) আকস্মিক বিপর্যয়ে ঘর ধ্বংস হয়ে গেছে।

৩. কবিতায় উল্লিখিত ‘হিমানীর বাঁধটি রয়েছে—
(ক) পায়ে পায়ে
(খ) মাথার উপরে
(গ) ডান পাশে
(ঘ) বাম পাশে
উত্তর- (ক) পায়ে পায়ে

৪. আমাদের মাথায়’—
(ক) আকাশ
(খ) বিমান
(গ) বােমারু
(ঘ) বােঝা
উত্তর- (গ) বােমারু

৫. “আমাদের কথা কে বা জানে’—আমরা হলাম—
(ক) ভবঘুরে
(খ) সাধারণ মানুষ
(গ) অসহায় মানুষ
(ঘ) ভিখারি।
উত্তর- (গ) অসহায় মানুষ

৬. হয়তাে গেছে মরে’—কী মরে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে?
(ক) পৃথিবী
(খ) শিশুরা
(গ) বিপন্ন মানুষেরা
(ঘ) ভিখারিরা
উত্তর- (ক) পৃথিবী

৭. আমাদের চোখমুখ’—
(ক) আতঙ্কগ্রস্ত
(খ) ঢাকা
(গ) বিভীষিকাময়
(ঘ) বিস্ফোরিত
উত্তর- (খ) ঢাকা

৮. আমরা ভিখারির কত মাস
(ক) ছয় মাস
(খ) আট মাস
(গ) বারাে মাস
(ঘ) নয় মাস
উত্তর- (গ) বারাে মাস

৯. কবির মতে আমরা কোথায় কোথায় ফিরেছি?
(ক) কাছে দূরে
(খ) গিরিখাদে।
(গ) ঘরে ঘরে
(ঘ) দোরে দোরে
উত্তর- (ঘ) দোরে দোরে

১০. ‘পথ’ শব্দটি আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতাতে ব্যবহৃত হয়েছে—
(ক) একবার
(খ) দুইবার
(গ) তিনবার
(ঘ) পাঁচবার
উত্তর- (খ) দুইবার

১১. কবিতায় কবি কীভাবে বেঁধে বেঁধে’ থাকতে বলেছেন?
(ক) দড়ি দিয়ে
(খ) দুহাত বেঁধে
(গ) হাতে হাত রেখে
(ঘ) কোমরে দড়ি বেঁধে
উত্তর- (গ) হাতে হাত রেখে

১২. আমাদের পায়ে পায়ে রয়েছে—
(ক) জুতাে
(খ) হিমানীর বাঁধ
(গ) কাটাতার
(ঘ) ধুলােবালি
উত্তর- (খ) হিমানীর বাঁধ

১৩. আমাদের ডান পাশে এবং বাঁয়ে রয়েছে যথাক্রমে
(ক) ধ্বস ও গিরিখাদ
(খ) হিমানীর বাঁধ ও গিরিখাত
(গ) গিরিখাত ও ধ্বস
(ঘ) বােমারু ও শিশুদের শব
উত্তর- (ক) ধ্বস ও গিরিখাদ

১৪. শঙ্খ ঘােষের ছদ্মনাম হল—
(ক) পরশুরাম
(খ) কুন্তল
(গ) কুন্তক
(ঘ) শ্রীপান্থ
উত্তর- (গ) কুন্তক

১৫. পায়ে পায়ে হিমানীর বাঁধ’—এখানে ‘হিমানী’ কথার অর্থ—
(ক) বােমা
(খ) পাহাড়
(গ) তুষার বা বরফ
(ঘ) সমুদ্রস্রোত
উত্তর- (গ) তুষার বা বরফ

১৬. ‘আমরা ফিরেছি’
(ক) ঘরে ঘরে
(খ) বেঁধে বেঁধে
(গ) পথে পথে
(ঘ) দোরে দোরে
উত্তর- (ঘ) দোরে দোরে

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023 | Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer | Madhyamik Bengali Suggestion 2023

অতি সংক্ষিপ্ত – ১ নম্বরের প্রশ্নোত্তরগুলি দেখে নেওয়া যাক –

১. “আমরা ভিখারি বারাে মাস”—এ কথা বলার কারণ কী?
উত্তর :
চরম নেতিবাচক পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের জীবন বিপন্ন। আশ্রয় ও জীবিকা হারিয়ে ভিক্ষাবৃত্তিই যেন তাদের অবলম্বন হয়ে উঠেছে। তাই একথা বলা হয়েছে।

২. আমাদের পথ নেই আর’—এ কথা বলার কারণ কী?
উত্তর :
বিপন্ন মানুষের চতুর্দিকে রয়েছে মৃত্যুর ফাঁদ আর প্রতিবন্ধকতা। এই প্রতিকূল অবস্থাকে বােঝাতেই কবি এ কথা বলেছেন।

৩. কিছু কোথাও যদি নেই’ তবে কী আছে?
উত্তর :
কোথাও কিছু না থাকলেও, চরম নেতিবাচক পরিস্থিতিতে কয়েকজন মানুষ বেঁচে আছে।

৪. পৃথিবী হয়তাে মরে গেছে’/‘পৃথিবী হয়তাে বেঁচে আছে’—একথা বলার কারণ কী?
উত্তর :
বিপন্নতার ঝােড়াে বাতাসে পৃথিবীর সাধারণ মানুষ মৃতবৎ l যদিও মৃতদেহের এই স্কুপের মাঝেই আশ্চর্যজনকভাবে বেঁচে রয়েছে কিছু মানুষ। পৃথিবীর এই জীবত অবস্থা দেখেই কবির এরূপ সংশয়সূচক উক্তি।

৫. তবু তাে কজন আছি বাকি’—একথা বলার কারণ কী?
উত্তর :
বিপন্নতা আর মৃত্যু মিছিলের ভিন্ন প্রান্তে অবস্থান করে, কিছু মানুষ আশ্চর্যজনক ভাবে বেঁচে আছে। তাদের কথা বােঝাতেই এই উক্তিটির অবতারণা করা হয়েছে।

৬. আমাদের পথ নেই আর’ তাহলে আমাদের করণীয় কী?
উত্তর :
চলার পথ রুদ্ধ হলে সংঘবদ্ধতার দ্বারাই প্রতিবন্ধকতাকে পার করা যায়। এমন পরিস্থিতিতে হাতে হাত রেখে বেঁধে বেঁধে’অর্থাৎ ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকাই আমাদের করণীয়।

৭. আমাদের ইতিহাস নেই’-এ কথা বলা হয়েছে কেন?
উত্তর :
সাধারণ মানুষের জীবন সংকটের কথা ইতিহাসের পাতায় ঠাই পায় না, সেখানে তারা উপেক্ষিত অবহেলিত।

৮. কবিতায় ‘হিমানীর বাঁধ’ কথাটি কোন অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে?
উত্তর :
বিপন্ন মানুষের দুর্লঙ্ঘ্য প্রতিবন্ধকতাকে কবিতায় ‘হিমানীর বাঁধ’ বলে অভিহিত করা হয়েছে।

৯. আমাদের চোখ মুখ ঢাকা’—এ কথা বলার কারণ কী?
উত্তর :
বিপন্ন মানুষগুলাে সবকিছু দেখেশুনেও প্রতিবাদহীন হয়ে থাকে। তাদের এই অদ্ভুত নির্লিপ্ততাকে বােঝাতে প্রদত্ত মন্তব্যের অবতারণা করা হয়েছে।

১০. ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতায় কথকের মাথার উপর দিয়ে কী উড়ে বেড়াচ্ছে?
উত্তর :
‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতায় কথকের মাথার উপর দিয়ে বােমারু উড়ে বেড়াচ্ছে।

১১. ছড়ানাে রয়েছে কাছে দূরে!’—কী ছড়ানাে রয়েছে?
উত্তর :
‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতায় কথকের বিবৃতি অনুযায়ী শিশুদের শব কাছে দুরে ছড়ানাে রয়েছে।

১২. কিছুই কোথাও যদি নেই’–এই অবস্থায় কী করণীয়?
উত্তর :
চারিদিকে ঘনায়মান মহাশূন্যতার মাঝে একে অপরের হাত ধরে সংঘবদ্ধভাবে থাকাই একান্ত করণীয়।

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023 | Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer | Madhyamik Bengali Suggestion 2023

সংক্ষিপ্ত – ৩ নম্বরের প্রশ্নোত্তরগুলি দেখে নেওয়া যাক –

১. “আমাদের ইতিহাস নেই”—কে, কেন একথা বলেছেন?

উত্তর : যুগ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতা থেকে গৃহীত আলােচ্যমান উক্তিটি বিপন্নতার মাঝে আশ্চর্যজনক ভাবে বেঁচে থাকা গুটিকয়েক মানুষের জবানিতে কবি স্বয়ং উচ্চারণ করেছেন।

মন্তব্যের কারণ : মানব সভ্যতার ক্রমাগ্রতির মৌন গাথা হল ইতিহাস। কিন্তু ইতিহাস লেখা হয় চেনা ছকে, রাজা-মহারাজাদের উচ্চাকিত গুণকীর্তন করতে—সেখানে সভ্যতার পিলসুজ, শ্রমজীবী সাধারণ মানুষেরা চিরকালই উপেক্ষিত ও ব্রাত্য। প্রকৃতপক্ষে চিরাচরিত ইতিহাস কোনাে সৌহার্দের সুরভী বহন করে আনে না বরং প্রচলিত ইতিহাস যুদ্ধ, শােষণ, ষড়যন্ত্র আর অমানবিকতার কোলাজ তৈরি করে। এজন্য শাসক নিয়ন্ত্রিত প্রচলিত ইতিহাসের পাতায় সভ্যতা রূপায়ণের ঋত্বিক তথা শ্রমজীবী সাধারণ মানুষেরা নেপথচারীই রয়ে যায়—তাদের ইতিহাস থাকে না।

২. “আমরা ভিখারি বারাে মাস”—এই উপলব্ধির মর্মার্থ লেখাে। কেন একথা বলা হয়েছে?

উত্তর :

উৎস : সমাজ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতাটি থেকে প্রদত্ত অংশটি গৃহীত হয়েছে।

উপলব্ধির মর্মার্থ : ভিখারি’ বলতে আমরা বুঝিভিক্ষাজীবীকে; অন্যের দয়াকে অবলম্বন করেই তারা বেঁচে থাকে। কিন্তু আলােচ্য অংশে বিপন্ন পরিস্থিতিতে আশ্চর্যজনকভাবে বেঁচে থাকা গুটিকয়েক সর্বহারা লাঞ্ছিত মানুষ নিজেদেরকে ‘ভিখারি’ বলে অভিহিত করেছে।

ক্ষমতাবান শাসকশ্রেণি ব্যক্তিস্বার্থে ইতিহাসকে কুক্ষিগত করে নিয়ন্ত্রিত করার মতলব করে। তাদের মতে-শােষিতদের চোখমুখ ঢাকা, তারা ভিক্ষালাভের তাগিদে হাত বাড়াক—প্রতিবাদের জন্য নয়।

শােষিত-বঞ্চিত এই শ্রমজীবী মানুষগুলির কাধে ভর করেই সভ্যতার রথচক্র এগিয়ে চললেও, বিপন্নতা আর আশ্রয়হীনতাই হয়ে ওঠে সাধারণ মানুষগুলির জীবনের নিষ্ঠুর ভবিতব্য। প্রতিনিয়ত তাই তাদের ভিক্ষাপাত্র হাতে নিয়ে দোরে দোরে ঘুরতে হয়—একারণেই তারা ভিখারি।

৩. “আমরা ফিরেছি দোরে দোরে”—আমরা কারা? দোরে দোরে ফেরার অর্থ বুঝিয়ে দাও।

উত্তর :

উৎস : সমাজ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতাটি থেকে প্রদত্ত অংশটি গৃহীত হয়েছে।

উত্তরের প্রথমাংশ : আমরা বলতে কবি কোনাে নির্দিষ্ট জনসমষ্টিকে বােঝাননি, বুঝিয়েছেন যুদ্ধবিধ্বস্ত পরিস্থিতিতে বেঁচে থাকা কিছু বিপন্ন মানুষকে।

উত্তরের দ্বিতীয়াংশ : বিপন্নতার চক্রব্যূহে মানুষগুলি আবদ্ধ, তারা নেতিবাচক পরিস্থিতির শিকার। তাদের চারিদিকে মৃত্যুর হাতছানি। ডান পাশে ভূমিধ্বস, বাম পাশে গিরিখাদ, মাথায় বােমারু বিমানের আনাগােনা আর সামনে হিমানীর বাঁধের বাধা। আসন্ন মৃত্যুর হাত থেকে নিজেদেরকে বাঁচাতে বিপর্যস্ত সেই মানুষেরা সাহায্যের প্রত্যাশায় দোরে দোরে জীবন ভিক্ষা চেয়ে চলেছে।

৪. আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’-কাদের উদ্দেশ্যে এই আহ্বান, এ আহ্বানের কারণ কী?
অথবা “আয় আরাে হাতে হাত রেখে/আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’—এই উদ্ধৃতির মধ্য দিয়ে কবি কী বােঝাতে চেয়েছেন?

উত্তর :

উৎস : সমাজ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতাটি থেকে প্রদত্ত অংশটি গৃহীত হয়েছে।

উত্তরের প্রথমাংশ : চরম নেতিবাচক পরিস্থিতিতেও, মৃত্যু মিছিলের মাঝে বেঁচে থাকা কিছু বিপন্ন মানুষের উদ্দেশ্যে এই আহ্বান।

উত্তরের দ্বিতীয়াংশ : নেতিবাচক পরিস্থিতির শিকার মানুষগুলি বিপন্নতার চক্রব্যূহে আবদ্ধ। চারিদিকে তাদের মৃত্যুর ফাদ—ডান পাশে ভূমিধ্বস, বাম পাশে গিরিখাদ, মাথায় বােমারু বিমানের আনাগােনা, আর হিমানীর বাঁধে চলার পথ রুদ্ধ। গৃহহীন, বিপন্ন উদ্ৰান্ত মানুষগুলাের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। বিপন্নতার এই চোরাবালি থেকে পরিত্রাণের একমাত্র উপায় হল সঙ্ঘবদ্ধতা। মহাশক্তিশালী অতি দাম্ভিক ডাইনসরেরা পৃথিবীতে টিকে থাকতে পারেনি কিন্তু সঙ্ঘবদ্ধ পিঁপড়ের দল আজও পৃথিবীর বুকে টিকে আছে। একারণেই কবি নেতিবাচক পরিস্থিতিতে মানব-বন্ধন তৈরি করে জীবন জয়ের এই আহ্বান করেছেন।

৫. আমাদের পথ নেই কোনাে’-কোন্ পথের কথা বলা হয়েছে? আমাদের কেন পথ নেই?
অথবা “আমাদের পথ নেই আর”—আমাদের পথ নেই কেন? এই পথের জন্যে কবির যে আহ্বান সূচিত হয়েছে তা সংক্ষেপে লেখাে।
অথবা “আমরাও তবে এইভাবে/এই মুহূর্তে মরে যাব না কি?’—আমরা কারা? জীবন সম্পর্কে তাদের এই ভাবনার কারণ কী?

উত্তর :

উৎস : সমাজ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি, কবিতাটি থেকে প্রদত্ত অংশটি গৃহীত হয়েছে।

উত্তরের প্রথমাংশ : বিপন্নতার চক্রব্যুহ থেকে পরিত্রাণ লাভের পথের কথা এখানে বলা হয়েছে।

উত্তরের দ্বিতীয়াংশ : নেতিবাচক পরিস্থিতির শিকার মানুষগুলি বিপন্নতার চক্ৰব্যূহে আবদ্ধ। চারিদিকে তাদের মৃত্যুর ফাঁদ—ডান পাশে ভূমিধ্বস’, বাম পাশে গিরিখাদ, মাথায় বােমারু বিমানের আনাগােনা আর হিমানীর বাঁধে চলার পথ রুদ্ধ। গৃহহীন, বিপন্ন, উদ্ভান্ত মানুষগুলাের দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছে। তারা নিজেদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকেও বাঁচাতে ব্যর্থ। প্রতিকূলতাকে অতিক্রম করার কোনাে পথ তাদের সামনে খােলা নেই।

৬, আমাদের চোখ মুখ ঢাকা’—আমাদের বলতে কাদের?‘চোখ মুখ ঢাকা থাকার কারণ কী?

উত্তর : যুগ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত “আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি” কবিতা থেকে সংকলিত উদ্ধৃতাংশে ‘আমরা বলতে কবি কোনাে নির্দিষ্ট জনসমষ্টিকে বােঝাননি। বুঝিয়েছেন, নেতিবাচক পরিস্থিতিতে আশ্চর্যজনকভাবে বেঁচে থাকা কিছু বিপন্ন সাধারণ মানুষকে।

চোখ মুখ ঢাকা বলার কারণ : স্বার্থান্ধ ক্ষমতার লােভীদের বৈরীভাবনায় মানুষ আজ বিপন্ন ও অসহায়। শাসন-শােষণ ও দমন-পীড়নের কদর্য প্রয়ােগে অসহায় মানুষের প্রাণ আজ কণ্ঠাগত। তবু তারা নির্লিপ্ত, প্রতিবাদবিমুখ।

ইতিহাসের পাতায় দেখা যায়, শােষকের শাসনকে শােষিতরা আবহমানকাল ধরে। নতমস্তকে মেনে নেয়। অন্যায় দেখেও তারা নিশ্চিন্তে চোখ বন্ধ করে থাকে, অত্যাচারিত হয়েও তারা মুখ বুঝে পড়ে থাকে—প্রতিবাদে সােচ্চার হতে কুণ্ঠাবােধ করে।

নিষ্পেষিত মানুষের এই প্রতিবাদ বিমুখতা তথা চোখ মুখ বুজে অসহনীয় অত্যাচার। অম্লানবদনে মেনে নেওয়াকে বােঝাতেই উত্তম পুরুষের বহুবচনাত্মক শব্দের জবানিতে কবি উচ্চারণ করেছেন “আমাদের চোখ মুখ ঢাকা।”

৭. আমাদের শিশুদের শব/ছড়ানাে রয়েছে কাছে দূরে”—উক্তির মধ্যে দিয়ে কবি
কী বােঝাতে চেয়েছেন, বিষয়টি স্পষ্ট করে লেখাে।

উত্তর : যুগ সচেতন কবি শঙ্খ ঘােষ রচিত ‘আয় আরাে বেঁধে বেঁধে থাকি, কবিতা থেকে প্রদত্ত অংশটি সংকলিত হয়েছে।

উক্তির মর্মার্থ : শিশুরাই আগামীর ভবিষ্যৎ। কিন্তু যুদ্ধ-দাঙ্গা, সন্ত্রাস ও হানাহানির পাপ-চক্ৰব্যূহে মানব শিশু আজ নিঃস্ব অভিমন্যু। স্বার্থান্ধ মানুষ ষড়রিপুর জালে আবদ্ধ হয়ে পৈশাচিক হত্যালীলায় আজ মগ্ন—শিশুদের পর্যন্ত তারা রেয়াদ করছে না। হিংসার যুপকাষ্ঠে, বলি প্রদত্ত হচ্ছে ভবিষ্যৎ প্রজন্ম। সভ্যতার এই পৈশাচিকতার চিহ্নই ছড়ানাে রয়েছে কাছে দূরে। সংকটজনক নেতিবাচক পরিস্থিতির শিকার হওয়া নিস্পাপ শিশুদের মৃতদেহের স্তুপ সভ্যতার তমসাচ্ছন্ন ভবিষ্যৎকেই অঙ্গুলিনির্দেশ করছে।

বাকি সাজেশন গুলোর লিঙ্ক

জ্ঞানচক্ষু গল্পের প্রশ্ন উত্তর | Gyan Chokkhu Class 10 Question Answer | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023

অসুখী একজন কবিতার প্রশ্ন উত্তর | Asukhi Ekjon Kobita Question Answer | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

1 thought on “আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি প্রশ্ন উত্তর 2023 | Ay Aro Bendhe Bendhe Thaki Question Answer | Madhyamik Bengali Suggestion 2023”

  1. ধন্যবাদ এই প্রশ্নের উত্তরগুলো দেওয়ার জন্য আশা করি এই আনসার গুলো আমার মোবাইলে কন্টিনিউ আস্তে থাকবে বা কি করলে আমার মোবাইলে বেঙ্গলি সাবজেক্ট এর কোশ্চেন অ্যানসার সাজেশন আসবে আমি জানতে চাই। ধন্যবাদ আমি খুব খুশি হয়েছি এ কোশ্চেন অ্যানসার গুলো পাওয়ার জন্য বিশেষ করে জ্ঞানচক্ষু গল্পের কোশ্চেন অ্যানসার গুলো
    আশা করি ২০২৩ এর মাধ্যমিক পরীক্ষার সাজেশন চাই

    Reply

Leave a Comment

error: Content is protected !!