আধুনিক ভারতের ইতিহাসচর্চায় ফোটোগ্রাফের ব্যবহার কীভাবে করা হয় সে সম্পর্কে বিশ্লেষণ করাে।

আধুনিক ভারতের ইতিহাসচর্চায় ফোটোগ্রাফের ব্যবহার কীভাবে করা হয় সে সম্পর্কে বিশ্লেষণ করাে। Mark 4 | Class 10

উত্তর:-

ভূমিকা : ১৮৫০-র দশকে ভারতে ফোটোগ্রাফি বা ক্যামেরায় ছবি তােলা শুরু হলে আধুনিক ভারতের ইতিহাসচর্চায় ‘ফোটোগ্রাফের ব্যবহার’ এক ধরনের নতুন ঐতিহাসিক উপাদান হয়ে ওঠে।

উপাদান : ফোটোগ্রাফি আলােকচিত্র থেকে ভারতের  ইতিহাসের যে-সমস্ত উপাদান পাওয়া যায় সেগুলি হল-

১) স্থাপত্য ও প্রত্নক্ষেত্র সংরক্ষণ : ভারতে ফোটোগ্রাফির ব্যবহার শুরু হলে ভারতের স্থাপত্য ও প্রত্নক্ষেত্রগুলিকে ফোটোগ্রাফির মাধ্যমে সংরক্ষণের নির্দেশ দেওয়া হয় এবং সংরক্ষিত প্রত্নক্ষেত্রগুলির ফোটোগ্রাফি সংরক্ষণ ইতিহাসে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হয়ে ওঠে। 

২) ১৮৫৭-র বিদ্রোহ : উনিশ শতকে ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দের বিদ্রোহকালের বিভিন্ন মুহূর্তকে ধরে রাখতে ফোটোগ্রাফির সাহায্য নেওয়া হয়। কলকাতা, বােম্বাই, লক্ষৌ প্রভৃতি স্থানের বিদ্রোহের ছবি এই বিদ্রোহের গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক উপাদান।

৩) রাজকীয় অনুষ্ঠানের ছবি : উনিশ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে ‘দিল্লি দরবার’, কলকাতায় ইংল্যান্ডের রাজপরিবার সদস্যদের আগমন বা বিভিন্ন ভাইসরয়ের কার্যগ্রহণের দিন ও অবসরগ্রহণের দিন বা বিভিন্ন ঘটনার ছবি তুলে রাখা হয়, যার মাধ্যমে ভারতে ব্রিটিশ প্রশাসন ও ইংল্যান্ডের রাজপরিবারের সঙ্গে ভারতের যােগসূত্র ফুটে ওঠে।

উপসংহার : ইতিহাসের উপাদানরূপে ফোটোগ্রাফি এক মূল্যবান আকরসূত্র। এগুলি বাস্তবসম্মত কেননা কোনাে ব্যক্তি ও ঘটনার আলােকচিত্রের সত্যতা অস্বীকার করা যায় না।

Note: এই আর্টিকেলের ব্যাপারে তোমার মতামত জানাতে নীচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে পারো। ধন্যবাদ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!